আমরা উদার, মুক্তচিন্তাশীল, সৃষ্টিশীল, প্রগতিশীল ও শান্তিকামী মানুষ । আমরা স্বপ্ন দেখি প্রত্যাশা, পরমত সহিষ্ণুতা ও সামাজিক ন্যায় বিচারের এমন একটা বাংলাদেশ, যেখানে মানুষ ক্ষুধা, দারিদ্র ও নিরক্ষরতা থেকে মুক্ত হয়ে আত্ম মর্যাদা, সামাজিক নিরাপত্তা ও বৈষম্যহীন জীবন যাপন করবে । যা হবে জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলার প্রতিচ্ছবি ।


আমরা উদার, মুক্তচিন্তাশীল, সৃষ্টিশীল, প্রগতিশীল ও শান্তিকামী মানুষ । আমরা স্বপ্ন দেখি প্রত্যাশা, পরমত সহিষ্ণুতা ও সামাজিক ন্যায় বিচারের এমন একটা বাংলাদেশ, যেখানে মানুষ ক্ষুধা, দারিদ্র ও নিরক্ষরতা থেকে মুক্ত হয়ে আত্ম মর্যাদা, সামাজিক নিরাপত্তা ও বৈষম্যহীন জীবন যাপন করবে । যা হবে জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলার প্রতিচ্ছবি । সমাজের গতিশীল ও টেকসই উন্নয়নের জন্য স্থিতিশীল নিরাপদ এই সামাজিক পরিবেশটা প্রয়োজন, যা আমাদেরকেই নিশ্চিত করতে হবে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য । আমাদের দেশ শান্তি, সম্বৃদ্ধি ও সাম্প্রদায়িক সম্পৃতির এক দেশ । আমাদের সরকার প্রগতিশীল ও শিক্ষা বান্ধব সরকার, কিন্তু সরকারের সদিচ্ছা থাকা সত্বে ও সম্পদের সীমাবদ্ধতা এবং অন্যান্য আর্তসামাজিক কারনে শতভাগ শিশুকে শিক্ষা সুবিধার আওতায় আনা সরকারের পক্ষে সম্ভব হয়নি । এখনো আমাদের সমাজের অনেক শিশু কিশোর শিক্ষা সুবিধা থেকে বঞ্চিত এবং সর্বনি¤œ মানবিক সুবিধা ও অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করে। সমাজের সুবিধা বঞ্চিত ও অবহেলিত এ সকল শিশু কিশোরেরা হয়ে ওঠে কিশোর অপরাধী, যৌবনে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী ও পরিনত বয়সে পেশাদার অপরাধী । তারা আমাদের সামাজিক শৃঙ্খলা ও প্রগতিশীল সমাজের জন্য হুমকি হয়ে দাড়ায় । আমরা যদি সে সকল সুবিধাবঞ্চিত ও অবহেলিত শিশু কিশোরদের শিক্ষা সুবিধা দিয়ে সুনাগরিক করে গড়ে তুলতে পারি, তারা হয়তো তথাকথিত সভ্য সমাজের ( ঈরারষ ঝড়পরবঃু) মানুষ হবে না ঠিকই কিন্তু অপরাধী হবে না । এভাবে একদিন আমরা আমাদের প্রত্যাশিত জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে পারব । এই লক্ষ্যে সমাজের সে সকল সুবিধাবঞ্চিত ও অবহেলিত শিশু কিশোরদের শিক্ষার অধিকার নিশ্চিত করতে আমরা শেখ রাসেল স্কুল এন্ড কলেজ প্রতিষ্ঠা করেছি । আমরা জানি এবং বিশ^াস করি, স্বপ্ন যদি হয় সুন্দর, উদ্দেশ্য যদি হয় মহৎ, সফলতা একদিন আসবেই আসবে । জয় আমাদের হবেই হবে ।।